Uncategorized

এখনই সময় কুয়েতে বাংলাদেশের কুটনৈতিক তৎপরতা শুরু করার!

নিজস্ব প্রতিবেদন, ইকরাম হোছাইন!

কুয়েত সিটি : মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম ধনী দেশ কুয়েত! কুয়েতে জনসংখ্যার অর্ধেকের ও অনেক বেশি মানুষ অভিবাসী, অর্থাৎ নিজেদের জনসংখ্যার চেয়ে ভারত, মিশর, পাকিস্তান, বাংলাদেশ, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, ফিলিপাইন প্রভৃতি দেশ থেকে আসা মানুষ ই সংখ্যাধিক্য!

কুয়েতের শ্রমবাজারে বাংলাদেশের মানুষ অনেক! মতভেদে বাংলাদেশী প্রায় ৩ লাখের বেশি মানুষ কুয়েতে থাকে, কুয়েতের শ্রমবাজারে বেশ সুনামের সংগে বাংলাদেশীরা কাজ করে আসছে! বাংলাদেশের মানুষের সহজসরল চলাফেরা ও ধর্মীয় ভাবে আমরা সমমনা হওয়ায়, কুয়েতে আমাদের অবস্থান বেশ শক্ত ই বলা চলে!

তবে এই দিন আর রইলো না! বিশেষত, বাংলাদেশীদের নানা অপকর্মে কুয়েতের প্রশাসন বেশ বিরক্ত। এর উপর আলোচনায় চলমান ভিসা বানিজ্য ও অর্থপাচারে বাংলাদেশের নামী দামি মানু‌ষের নাম আসায়, জেলে থাকায় আমরা বাংলাদেশীরা কুয়েতের মাটিতে বেশ বিব্রত! আমাদের দেশ, জাতি আজ কুয়েতে প্রশ্নের সন্মুখীন!

এর উপর হানা দিলো করনা ( কোভিট ১৯)! সারা দুনিয়ার অর্থনৈতিক অবস্থা নিম্নমুখী, সেই একই অবস্থা কুয়েতের শ্রমবাজারে ও। বড় বড় কোম্পানি গুলো কর্মী ছাটাই শুরু করে দিয়েছে, ব্যবসা বানিজ্য ইত্যাদির বেহাল দশা! কর্মীরা বেকার হচ্ছে, এটাই সত্যি আর শ্রমবাজারের অবস্থা ও বেহাল! উত্তরন বা পরিত্রানের পথ আপাতত অজানা!

সহসাই অবস্থার পরিবর্তন হবে বলে মনে হচ্ছে না!

আবার, কুয়েতের নিজেদের নাগরিকদের চাকরিতে আনয়ন, অর্থাৎ সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান গুলো কুয়েতিকরন এর ফলেও বহু কর্মী বেকার হচ্ছে! উপরন্তু, কুয়েতের শ্রমবাজারে কৌটা ব্যবস্থার প্রনয়ন বাংলাদেশের জন্য সবচাইতে বড় অশনিসংকেত বহন করে, এজেন্ডায় থাকা এই আইন যদি পাস হয় তাহলে বাংলাদেশের ম্যাজরিটি বা ৫ ভাগের ৩ ভাগ শ্রমিককেই ” গাট্টি গোল করা ” লাগবে!

কি করা উচিৎ? আপাত দৃষ্টিতে মনে হচ্ছে, কুয়েতের জনসংখ্যার ভারসাম্য আনয়নে কুয়েত ” মিনিংফুল ” কিছু ব্যবস্থা নিবেই! কারন অতিরিক্ত অভিবাসীর ভার বয়ে চলে কুয়েতের জনসংখ্যাতাত্ত্বিক ভারসাম্য ( তাদের ভাষায়) ঠিক নেই!

কুয়েতের এই সব আইন কানুনের প্রতি সম্মান ও লক্ষ্য রেখে ভারত সহ অন্যান্য শ্রমিক প্রেরণকারী দেশ কুটনৈতিক তৎপরতা শুরু করে দিয়েছে! বিভিন্ন চ্যানেলে তারা কুয়েত কতৃপক্ষের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সাথে সুসম্পর্ক বজায় রেখে যাচ্ছে! ইতিমধ্যেই ভারতের কুটনৈতিক তৎপরতার খবর সংবাদে এসেছে!

আমাদের শ্রমবাজার হাত ছাড়া হওয়ার আগেই আমাদের সরকার আলোচনা করুক! কুটনৈতিকভাবে শ্রমবাজারে থাকা বাংলাদেশীদের রাখার অনুরোধ করুক! কুয়েতে যদিও সম্মানের দিকে আমরা ” নিচের থেকে প্রথমে ” তাও প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকুক কারন প্রবাসীরা ভাল থাকলেই, ভাল থাকবে পরিবার, প্রিয়জন ও আমাদের মাতৃভূমি!

Related News

Add Comment