এবার থেকে সৌদি নারীরাও যোগ দিতে পারবে সেনাবাহিনীতে

এখন থেকে পুরুষের পাশাপাশি সৌদি নারীরাও যোগ দিতে পারবে সেনাবাহিনীতে। এতে বলা হয়েছে, যে নারীরা সেনাবাহিনীতে সৈনিকপদে আবেদন করবেন তাদের অবশ্যই সৌদি বংশোদ্ভূত ও সৌদিতে বেড়ে উঠতে হবে।

এবার থেকে সৌদি নারীরাও যোগ দিতে পারবে সেনাবাহিনীতে

এখন থেকে পুরুষের পাশাপাশি সৌদি নারীরাও সেনাবাহিনীতে চাকরির আবেদন করতে পারবেন। আজ ২১ ফেব্রুয়ারি (রোববার) শুরু হওয়া একটি সমন্বিত নিয়োগ পোর্টালে সশস্ত্র বাহিনীর জন্য বিজ্ঞপ্তিতে নারী ও পুরুষের আবেদন করার সুযোগ রাখা হয়েছে।

সৌদি আরবের সেনাবাহিনী, রাজকীয় সৌদি আকাশ প্রতিরক্ষা বাহিনী, রাজকীয় সৌদি নৌবাহিনী, রাজকীয় সৌদি কৌশলগত ক্ষেপণাস্ত্র বাহিনী ও সশস্ত্র বাহিনীর মেডিকেল সার্ভিসে সৈনিক থেকে সার্জেন্ট পদমর্যাদায় লোক নেওয়া হবে।

নির্দিষ্ট শর্তানুসারে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় উত্তীর্ণ হতে হবে সব আবেদনকারীকে। এছাড়া তাকে শারীরিকভাবে সুস্থ ও প্রয়োজনীয় সকল কাগজপত্র থাকতে হবে। তবে নারীদের ক্ষেত্রে আলাদা কিছু মানদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

নারী আবেদনকারীদের অবশ্যই ২১ ও ৪০ বছর বয়সের মধ্যে হতে হবে। আর উচ্চতা থাকতে হবে ১৫৫ সেন্টিমিটার। তারা কোনো সরকারি কর্মকর্তা হতে পারবেন না।

বিবাহিত ও সৌদি নাগরিক না—তারা এতে আবেদন করতে পারবে না।

পরিচালন সিস্টেম বিশেষজ্ঞ হালাহ আল-ইয়ানাবাউই বলেন, আরব দেশগুলোতে গত ত্রিশ বছর ধরে সেনাবাহিনীতে নারীদের নিয়োগ দেওয়ার বিষয়টি বিতর্কিত ছিল। কিন্তু বাদশাহ সালমানের রূপকল্পে নারীদের সব ক্ষেত্রে অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আরো জানা যায়, নারীরা সেনাবাহিনীতে সৈনিকপদে আবেদন করবেন তাদের অবশ্যই সৌদি বংশোদ্ভূত ও সৌদিতে বেড়ে উঠতে হবে। তবে সরকারি চাকরিতে বিদেশে কর্মরত কর্মকর্তাদের সন্তান যারা বিদেশে পিতার-মাতার সঙ্গে বসবাস করছেন, তারাও আবেদন করতে পারবেন।

চাকরিতে বয়সের সর্বোচ্চসীমা ২৫ থেকে ৩৫ বেঁধে দেয়া হয়েছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা কমপক্ষে উচ্চ-মাধ্যমিক পাস হতে হবে।

চাকরিতে নিয়োগ পাওয়ার আগে আবেদনকারী নারীদের প্রাথমিক পরীক্ষা, সাক্ষাৎকার ও মেডিক্যাল চেকআপ উতড়ে যেতে হবে। এছাড়া আবেদনকারী নারীদের ভালো আচরণের সনদপত্র থাকতে হবে। এছাড়া সরকারি খাত ও সেনাবাহিনীতে কর্মরত প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন না।

Related News

Add Comment