এমপি পাপুলের অভিযোগ প্রমান হলে কুয়েতে জেল হতে পারে ৭ থেকে ১৫ বছরের?

কুয়েত সিটিঃ কুয়েতে ২০২০ সালের শুরুতেই মানব পাচারের অভিযোগে লক্ষীপুর ২ আসনের এমপি ও কুয়েত মারাফি কোম্পানীর ম্যানেজার কাজী শহিদুল ইসলাম ওরফে পাপলু (পাপুল) সমালোচনায় আসেন কুয়েতের সরকারি পত্রিকা সহ অনলাইন জগতে।

কয়েক মাস আগে শহিদুল ইসলাম পাপলু কে কুয়েত পুলিশ গ্রেফতার করে পরে জামিনে মুক্তি পেয়ে কুয়েতেই অবস্থান করেন যতদিন মামলার তদন্ত শেষ না হয়।

কুয়েত সি আই ডি তদন্ত শেষে তার বিরুদ্ধে মানব পাচারের ও অর্থ পাচারের সাথে জরিত থাকায় তাকে পূনরায় গ্রেফতার করে রিমান্ডে নেয়।

বাংলাদেশী পত্রিকা চ্যানেল ২৪ এর একটি নিউজে কুয়েতের আইনে প্রমান হলে পাপলুর ৭ থেকে ১৫ বছরের জেল হবে বলে প্রকাশ করে।

এখানে ক্লিক করে নিউজটি দেখুন..

ভিডিওতে দেখুন পাপলুর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ…

ভিডিও লিং এখানে দেখুন..

Related News

Add Comment