কুয়েতে ভিসা বিক্রির দায়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে কুয়েত ক্রিমিনাল কোর্ট !!

কুয়েত সিটিঃ কুয়েতে শ্রমবাজারে নতুন নতুন চাকুরির সন্ধানে বিভিন্ন দেশ থেকে প্রতিদিন হাজার হাজার শ্রমিক আসলেও এর ৮০% শ্রমিক আসে ফ্রি ভিসায় যেটা কুয়েতের আইনে সম্পুর্ন নিষিদ্ধ।

কিছুদিন আগে একটি কন্সট্রাকশান এলাকা থেকে কিছু শ্রমিকদের গ্রেফতার করা হলে তাদের থেকে বেরিয়ে আসে তারা প্রতিটি ভিসা ১,৫০০ দিনার করে ক্রয় করে এই ভিসা।

কুয়েত জনশক্তি মন্ত্রনালয় তদন্ত করে ৪০০ শত ভিসা ১,৫০০ দিনার করে বিক্রির দায়ে একজন কুয়েতি ও একজন মিশরি নাগরিক কে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয় কুয়েতের ক্রিমিনাল কোর্ট ।

এদিকে আরো ভিসা বিক্রির দায়ে একজন সৌদি নাগরিক ও ২ জন মিশরি ও একজন ছুরিয়ান কে ৩ বছর করে কারাদণ্ড দেয় কুয়েত ক্রিমিনাল কোর্ট।

কুয়েত ক্রিমিনাল কোর্ট উল্লেখ করেন যে, কুয়েতে ভিসা বিক্রি ও কেনা দুটোই ফৌজদারি অপরাধ, এবং কিছু কোম্পানি ভিসা দিয়ে লোক এনে কয়েকমাস কাজ করিয়ে দাতের জোর করে বাধ্য করায় কাজ ছেরে দিতে এবং সেই যায়গায় আবার নতুন করে ভিসা বের করে তা বিক্রি করা হয়, এদের বিরুদ্ধেও কুয়েত জনশক্তি মন্ত্রনালয় তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেছে।

একজন উকিলের কাছে আমাদের পক্ষ থেকে ভিসার দালালদের শাস্তি দেয়ার জন্য প্রশ্ন করা হলে উকিল বলেন।

উত্তরঃ প্রথমেই বলে রাখা ভাল যে, ভিসা ক্রয় ও বিক্রয় দুটোই সমানভাবে অপরাধ, তবে যে ভিসা বিক্রি করছে সে যদি আপনার থেকে টাকা নেয় এবং যথাযথ প্রমান থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে যে কোন থানায় গিয়ে তার বিরুদ্ধে মামলা করে দেয়া যাবে, এবং মামলাটি কোর্টে দেয়ার পরে আসামি কে ডাকা হবে।
আপনি যদি যথাযথ প্রমান সংগ্রহ করতে পারেন তাহলে অবশ্যই তার শাস্তি দেয়া সম্ভব।

যদি কারো কাছে লিখিত কোন প্রমান না থাকে তাহলে একি ব্যক্তির নামে যদি একাধিক ব্যাক্তি শাক্ষি দেয় তাহলেও তার বিরুদ্ধে যে কোন মামলা দেয়া সম্ভব।

সুত্রঃ আরব টাইমস অনলাইন

Related News

Add Comment