জীবনের কত রং!

আলো ঝলমলে কুয়েত সিটির উপকন্ঠে স্যুক ওয়াতানিয়া ( বাংগালি স্যুক ও বলে)! সন্ধ্যার পর থেকে টেক্সি ও যারা আদি ( প্রাইভেট) গাড়ি চালায় তারা বসে থাকে যাত্রী নেওয়ার আশায়! আজ সন্ধ্যার পর আমি যখন বসে ছিলাম, ভাবলাম কারো সাথে একটু আড্ডা জমায়!আমি বন্ধুবৎসল ও আড্ডাপ্রিয় মানুষ তাই কথা জমাতে বেশি সময় লাগলো না! কথা জমিয়ে তুললাম, চাটখিলের মনির ( ছদ্মনাম) ভাইয়ের সাথে! চা নিয়েছিলাম, হাফ উনার সাথে শেয়ার করলাম, শুনলাম তার জীবনের আঁকাবাঁকা সব গল্প, কুয়েতে আজ তিনি ২৩ বছর, দেশে ২ মেয়ে আছে, আলহামদুলিল্লাহ! স্ত্রী, মা বাবা নিয়ে উনার সুখের সংসার!চাকরি করেন উকিলের অফিসে, পার্টটাইম গাড়ি চালান! প্রবাস জীবনে এত বছর কাটিয়ে ও তার “সাফল্যের ” পরিমান শুন্য বলে শুনতে হল, তবে মাশাআল্লাহ, হাসি আর কথায় কথায় শুনালেন সুখে আছেন, সুখে রাখছে আল্লাহ!আমার ভাব ভাল মানুষের সাথেই জমেছে, কথা চলাকালীন উঠবেন না বলে, ২ টা যাত্রী ছেড়ে দিলেন! আপন লোকদের কিছু বেঈমানীর কথা ও শুনালেন, অভিশাপের বানী ও ছাড়লেন!আমি ভাবছি, আমার মতো অনেকের মাত্র শুরু! জীবনের এই দুর্গম পথ পাড়ি দিতে হবে, যেতে হবে অনেকদূর! হয়তো সেদিন আমার গল্প অন্য কেউ শুনবে, আর আভছা আবায় নিজের গল্পের প্রস্তুতি নিবে!নোট : ছবিতে মনির হোসেন ভাই, চাটখিলের খীলপাড়া!

Related News

Add Comment