বাংলাদেশি ট্যাক্সি ড্রাইভার হত্যা মামলায় কুয়েতি নাগরিক গ্রেফতার!!

কুয়েতঃ কুয়েতে চার দিন পরে একজন বাংলাদেশী ট্যাক্সি ড্রাইভারের মৃতদেহ পরে থাকতে দেখা যায় কুয়েতের জাবরিয়া এলাকায়, এই হত্যাকান্ডের ঘটনায় ৩০ বছরের একজন কুয়েতি নাগরিক কে গ্রেফতার করা হয়।

কুয়েত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জেনারেল ডিপার্টমেন্ট অফ পাবলিক অ্যাফেয়ার্স অ্যান্ড সিকিউরিটি মিডিয়া কর্তৃক জারি করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, 30 বছর বয়সের একজন কুয়েতী ব্যক্তি কে বাংলাদেশী ট্যাক্সি ড্রাইভারের খুনের ঘটনায় তদন্ত করে তার বিরুদ্ধে এই খুনের অভিযোগ থাকায় তাকে গ্রেফতার করে। -এই কুয়েতি নাগরিক বাংলাদেশী ট্যাক্সি ড্রাইভার কে মারধর করে তার থেকে ট্যাক্সি চুরি করে এবং ট্যাক্সিটি পুড়িয়ে দেয়ার চেস্টা করেছিলেন।

চার দিন আগে, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অপারেশন রুমের কর্মকর্তারা একটি খবর পেয়েছিলেন যে জাবরিয়া এলাকায় একটি খোলা ভবনে একজন যুবকের লাশ পাওয়া গেছে এবং যুবকের গায়ে কয়েকটি ছুরির আঘাত ও ছিল।

তখনই কুয়েত নিরাপত্তা বাহিনী ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের প্রাথমিক তদন্তে বলেন যে লাশটি একজন অজ্ঞাত ব্যাক্তির এবং শরীর রক্তে ভেজা ছিল।

এই ঘটনায় গোয়েন্দা বিভাগ একটি দল গঠন করেছিলেন এবং প্রত্যক্ষদর্শীদের থেকে জানাজায় যে একজন অজ্ঞাত লোক ট্যাক্সি থেকে একটি লাশ ফেলে দিয়ে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

অবশেষে, চুরি করা ট্যাক্সিটি কুয়েতের রাওয়াদা এলাকায় পাওয়া যায় যেখানে সন্দেহভাজন তার ট্রাক লুকিয়ে ট্যাক্সিতে আগুন ধরানোর চেস্টা করেছিলেন।

তবে, কর্মকর্তারা তাকে সনাক্ত করতে সক্ষম হন এবং পরে জবরিয়া এলাকায় তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে। সন্দেহভাজন ব্যক্তি ট্যাক্সি ছিনতাইয়ের এবং তার ট্যাক্সি চুরি করার পাশাপাশি সমস্ত প্রমাণ ধ্বংস করার জন্য এটি পুড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে।

সুত্রঃ আরব টাইমস অনলাইন পত্রিকা

বাংলায় তরজমাঃ কুয়েত পেইজ ফর বাংলাদেশী

Related News

Add Comment