বাংলাদেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের কাছে আকুল আবেদন

সরকার সহ বাংলাদেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের কাছে আকুল আবেদন এইযে-
ভ্যাকসিন প্রদানের মাধ্যমে কুয়েত প্রবাসীদের কুয়েত ফিরতে সহোযোগিতা করুন….

প্রবাসীদের কুয়েত ফিরতে হলে কুয়েত সরকারের অনুমোদিত ভ্যাকসিন গ্রহন করে কুয়েতে আসতে হবে প্রবাসীদের। আর কুয়েত সরকার অনুমোদিত ভ্যাকসিন গুলো হলো – ফাইজার, অক্সফোর্ড, মোর্দানা ও জনসন&জনসন। এর মধ্য বাংলাদেশে শুধু “ফাইজার” ভ্যাকসিন রয়েছে এবং তা ৪০ উর্ধ্ব বয়সীদের জন্য। এমনকি (NID) কার্ড ছাড়া ভ্যাকসিনের জন্য আবেদন করা যাচ্ছেনা। অনেক প্রবাসীদের (NID) নেই তাহলে করনীয় কি বা কি ভাবে ভ্যাকসিন গ্রহন করে কুয়েতে ফিরতে পারে তার একটা বিহিত প্রয়োজন।

আমরা চাই ভ্যালিড আকামাধারী প্রবাসীদের ভ্যাকসিন প্রদানের অগ্রাধিকার দিয়ে তাদের কর্মস্থল কুয়েত ফেরার সুযোগ করে দেওয়া হোক।

করোনা মহামরীর শুরু থেকে খুব কষ্টে দিন কাটালেও কুয়েতের প্রতিটা নিয়ম যেনো খাড়ার উপর মরার গা হয়ে দাড়িয়েছে প্রবাসীদের জন্য।

একদিকে কড়াকড়ি নিয়ম অন্য দিকে দেশে আটকে পড়া প্রবাসীদের দু:র্বিসহ জীবন যাপন। অনেক প্রাবসাীরা দেশ থেকে ফোন দিয়ে বলে ১৫ মাস, ১৬ মাস হয়েগেছে কুয়েত ফিরতে পারিনি অনেকের আবার আকামার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে যার ফলে আর কুয়েত ফেরা হবেনা তাদের। প্রতিদিন শুনতে হয় প্রবাসীদের নিত্য নতুন করুন কাহিনী, আর বুক ফাটা আর্তনাদ।

Related News

Add Comment